Recent air travel experience

Recently I have experienced my life’s longest air journey! During this journey, I have used a few numbers of airlines! I am trying to share my experience about them!

I went to Goa, India on 23rd July, 2010! There was no direct flight from Dhaka-Goa! Even, if I want to use single airline, it will take at least 22hours to reach to Goa! On such a critical situation, Nazrul vy (Brother-in-law of arafat vy) from Pan Bright Tours & Travels, arranged connecting flights for me! At first I was very skeptical about the connecting flights because if any flight delays, I will miss the next flight! However, good news is that I did not miss any flight :D! Continue reading →

বাংলাদেশের সীমানা ছুঁয়ে…

এর আগে একবার তিস্তা ব্যারেজ দেখে অদ্ভূত ভাল লেগেছিল! তখন থেকেই পরিকল্পনা ছিল সুযোগ পেলেই আবার আসব দেখতে! অফিসের কাজ, ইন্টার্ণশীপ এবং তার রিপোর্ট লেখা, ঈদের পর এমবিএ ফাইনাল সব মিলিয়ে গত সপ্তাহে একেবারে হাঁপিয়ে উঠেছিলাম! তখনই তুষারের সাথে কথা বলে ঠিক করলাম বৃহ:স্পতিবার আবার নীলফামারি যাব এবং যেহেতু এ সময় বিশাল বড় একটা চাঁদ পাওয়া যাবে, রাতে বেলায় তিস্তা ব্যারেজ দেখতে নিশ্চয়ই মজা হবে! তুষার রাজি হল! আমি অলজবসবিডি.কম এর এডমিন খোকন ভাইকে ফোন দিলাম তিনি কুড়িগ্রাম থেকে এসে আমাদের সাথে যোগ দিতে আগ্রহী কিনা! তিনি রাজি হলেন! আমি বৃহঃষ্পতিবার সকালে তিতুমির এক্সপ্রেসে রাজশাহী থেকে ট্রেনে উঠলাম নীলফামারির উদ্দেশ্যে! ১১টার দিকে খোকন ভাই মোটর সাইকেল নিয়ে কুড়িগ্রাম থেকে রওনা দিলেন নীলফামারির উদ্দেশ্যে! হঠাৎ মনে হল আমার তো পর্যাপ্ত টাকাই নেয়া হয়নি! তাই আমি সৈয়দপুর নেমে গেলাম! সেখানে ডিবিবিএল এর বুথ থেকে টাকা তুলে খোকন ভাইকে ফোন দিলাম! তিনি বললেন ৩০ মিনিটের মধ্যে তিনি সৈয়দপুর পৌঁছে যাবেন! আমি ভাবলাম তাহলে এখান থেকে একসাথেই যাব! আমি একটা রিকসা নিয়ে ঘুরলাম! প্রথমেই রেল কারখানায় গেলাম! গেটের গার্ড বলল (ঐ) লাল রুম থেকে আগে পারমিশন আনতে হবে! আমি সেখানে গিয়ে বললাম আমি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এসেছি, আমি ভেতরে দেখতে চাই! তিনি বললেন আজকে তো অফিস ছুটি! শনিবার আসেন! আমি বললাম অনুমতির নাকি ব্যাপার আছে?

Continue reading →

ঘুরে এলাম জাফলং….

Road to Jaflongগত বেশ কয়েকদিন ধরেই মনে হচ্ছিল কোথায় যাওয়া দরকার! কিন্তু যাওয়ার মত সঙ্গী না পাওয়ায় যেতে পারছিলাম না! আমি ছাড়া জগতের সবাই ব্যস্ত! অনেককে বললাম! সর্বশেষে বললাম আরাফাত ভাইকে! তিনি রাজি হলেন! সন্ধ্যায় সিন্ধান্ত নিলাম বরিশাল যাব! জাহাজে বসে নদী-চাঁদ উপভোগ করবো! পরদিন সন্ধ্যায় যাত্রা করার কথা! কিন্তু সকালে মনে হল আজকে তো বৃহঃস্পতিবার; বরিশালের জাহাজে কেবিন পাওয়া মুশকিল! তাই ভাবলাম তাহলে কক্সবাজার যাই! কেন আরাফাত ভাইকে বললাম দুপুরের পর চলে আসতে! এরপর দেখা যাবে কি করার! তিনি আসতে বেশ দেরিই করলেন! বিকালের দিকে আমরা বের হলাম! সিন্ধান্ত নিলাম যেহেতু কক্সবাজার ও বরিশালে আগেই আমরা গেছি এবং যেহেতু কক্সবাজারে প্রচুর গরম হবে তাই সিলেট যাওয়া যেতে পারে! দুজনেই অনেক আগে গেছি সেখানে! কিন্তু যন্ত্রণা শুরু হল যখন মালিবাগ এসে দেখি সোহাগে খালি সিট নাই! গ্রীন লাইনে ফোন করেও একই অবস্থা! বৃহঃস্পতিবার বলে কথা! তারপর আর কি করা! সায়দাবাদ এসে শ্যামলী বাসের টিকিট করলাম! ৬.৩০ এর বাস আসল ৭টায়! তাও ভাল উঠে বসলাম!Mountains in India
কিন্তু একি! একটু পর পর দেখি গাড়ির স্টার্ট বন্ধ হয়! ড্রাইভার দেখি হেলপার কে গালিগালাজ করছে! গাড়িতে সমস্যা! কি আর করা! চিটাগাং রোড এসে গাড়ি ঠিক করাতে দেয়া হল! প্রায় ৪৫ মিনিট শেষ! এরপর মোটামুটি ঝামেলা বিহীন ভাবেই যাত্রা শেষ হল! মাঝখানে একবার হেলপার ও কন্ডাকটরের সাথে কিছুক্ষণ তর্ক করলাম। আমার বক্তব্য ‘আপনাদের গাড়ির যে গ্রিলটি লাগিয়ে দিচ্ছেন এতে আপনারা যাত্রীর তুলনায় মূলতঃ নিজেদেরই সেভ করার চেষ্টা করছেন! ‘

রাত ১২.৩০ এর দিকে আমরা আম্বরখানায় নামলাম! আগেই সিন্ধান্ত হয়েছিল আমরা আরাফাত ভাইয়ের বোনের বাসায় থাকব! তাঁর দুলাভাই (পলাশ) এসে আমাদের নিয়ে গেলেন! আমরা খেয়ে দেয়ে ঘুমিয়ে পড়লাম! Continue reading →

Touching the waves…

I had a long wish to visit Coxs Bazar beach. Its the world largest sea beach in the world which is in Bangladesh. So, its a great dream for all Bangladeshi to visit such a great place at least once.

My dream came to true on 13th March. I have started my journey to dhaka from rajshahi on 12th March at night. at morning i reached to dhaka. my other mates have bought tickets of “suborno express” train to chittagong which was scheduled to start at 4pm. Sumon and I have joined other mates at Airport station. we were 11 members in our team :D. Its was about 6 hours journey. As usual train journey is always boring to me. the this journey was even more boring as one of the bullshit Advisors of Bangladesh Govt. was in train which caused extreme restriction to the passengers. After reaching to chittagong, we have caught the last bus from chittagong to coxs bazar. the bus was a bit congested. we were extreme hungry (prefix of my name 😉 ) as we could not have eat anything after lunch. at 2.30am (late mid night) the bus stopped near a restaurant where we had our meal. At about 4.30am we have reached to coxs bazar. after about 1 hour searching, we have rented a Hotel (Nishan may be the name). It was about to sunrise. keeping the baggages in the hotel, we have reached to the beach. the expression of first sight is not possible to express. the wave of the water, the fog, the flare of sun light…..made us feel like dream. we have started taking snaps. after 1 hour we backed to room and have breakfast and slept for a while. Continue reading →

পুলক জাগানো অভিজ্ঞতা

গত রবিবার এক দারুন অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হলাম। আমাদের বিভাগের সংগঠন “পোর্টফোলিও” এর উদ্দ্যোগে আয়োজন করা হয় নৌকা ভ্রমনের। নৌকাতে করে আমরা যাব পদ্মার অপর পাড়ে। দুপুর পর্যন্ত ক্লাস শেষ করে ১ম বর্ষ থেকে এমবিএ পর্যন্ত প্রায় ৫০ জনের একটা বিশাল দল হাঁটা দিল পদ্মার পাড়ের দিকে। সেখান থেকেই নৌকায় উঠব। ফাঁকিবাজ আমি দল ছেড়ে আস্তে সরে গিয়ে রিকসা ধরে আগেই পদ্মার পাড়ে পৌঁছে যাই। কারণ খালি পেটে অতটা হাটার শক্তি ছিল না। ২.৩০টার দিকে ইঞ্জিন চালিত নৌকা চলতে শুরু করল। সে কি হই হুল্লুড়। মনে হচ্ছে নৌকাই ডুবে যাবে। এরপর নৌকাতেই শুরু হল খাওয়া দাওয়া। কিছুক্ষন চলল পানি নিয়ে একে অপরকে ভেজানোর খেলা। মাঝিদের সর্তক থাকার নির্দেশে কিছুটা নিস্তেজ হলাম আমরা। প্রায় ২০ মিনিট নৌকা চলার পর আমরা পৌঁছে গেলাম পদ্মা নদীর অপর প্রান্ত। নামগুলো মনে নেই। ছবিতে আছে।
নদীর পাড়ে উঠার পূর্বে পাড় দেখে টাইটানিকের বিশাল বরফের পাহাড়ের কথাই বারবার মনে হচ্ছিল। Continue reading →

ঘুরে এলাম কুড়িগ্রাম

পড়াশোনা, প্রজন্ম ফোরামের উন্নয়ন ও অন্যান্য কাজ করতে করতে একেবারে হাপিঁয়ে উঠেছি। তাই ভাবলাম একটু বিরতি দরকার। বেড়াতে যাওয়ার পরিকল্পনা করছি অনেক দিন থেকেই। সময়, সুযোগ ও সাথী সবকিছু একসাথে হয়ে উঠেনি। রা.বি’র ভূগোল বিভাগের প্রাক্তন ছাত্র খোকন ভাই অনেক দিন ধরেই তাদের এলাকায় বেড়াতে যাওয়ার জন্য বলছিলেন। গত রবিবার তিনি ঢাকা থেকে রাজশাহী এসেছেন আমাকে নিয়ে যাওয়ার জন্য। কিন্তু বেরসিক এক স্যারের ক্লাস কিছুতেই মিস দেয়া যাবে না। তাই তিনি এ কয়টা দিন এখানেই রইলেন। বুধবারে ক্লাস শেষে চড়ে বড়লাম বিআরটিসি বাসে। নাটোর হয়ে বগুড়া পৌঁছালাম।
বগুড়ায় নামলাম যাত্রা বিরতিতে। সেখানেই চোখে পড়ল কৃষি অধিদপ্তর বা অন্য কারও বিশাল বিলবোর্ড যাতে লেখা: Continue reading →

WordPress Ella & Me

WordPress Ella was launched with great luck but my first posting in it is a story of badluck.

From few days I was preparing to go Cox’s bazar and St. Martin’s Island. Finally, we (me & swapon vy) came to dhaka to go there. But unfortunately, my fate did not allow me to proceed. I may back to Rajshahi tomorrow. 🙁